Alapon

আবরারের মূল হত্যাকারী ইসকনি অমিত সাহাকে আড়াল করতে গভীর চক্রান্ত...


ইতিমধ্যে স্পষ্ট সাক্ষ্য প্রমাণ পাওয়া গেছে, বুয়েট ছাত্রলীগের আইনবিষয়ক উপসম্পাদক অমিত সাহার রুমেই আবরার ফাহাদকে পিটানো হয়েছিল। অমিতই এই খুনে নেতৃত্ব দিয়েছিল। সে এখন পলাতক।

অমিত সাহার ফেসবুক আইডির লাইক লিস্ট ঘেঁটে দেখা যায়, তার অধিকাংশ লাইক উগ্রবাদী হিন্দু সংগঠন ইসকন সংক্রান্ত।

বুয়েট কর্তৃপক্ষের দেয়া বিবৃতি থেকে জানা যায়, আবরার হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে শিক্ষা উপমন্ত্রী নওফেলের সঙ্গে বুয়েটের ভিসি সকাল থেকে কয়েক দফা আলোচনা করেছেন।

এই শিক্ষা উপমন্ত্রী নওফেলই কিছুদিন আগে চট্টগ্রামে ইসকনের রথযাত্রায় গিয়ে "জয় জগন্নাথের জয়" শ্লোগান দিয়েছিল এবং ইসকনের সাথে তার দীর্ঘদিনের সম্পৃক্ততার কথা প্রকাশ্যে স্বীকার করে। এই বক্তৃতায়ও নওফেল প্রকাশ্যে ইসকনের সাথে তার সম্পর্কের কথা বলেছে:

আবরার খুনের ইস্যুতে বুয়েটের ভিসি কেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও শিক্ষামন্ত্রীকে ফেলে ইসকন-ভক্ত শিক্ষা উপমন্ত্রী নওফেলের সাথেই দফায় দফায় আলোচনা করলেন? কী ইন্সট্রাকশন দিয়েছে নওফেল!

সেই নওফেল আজ সন্ধ্যায় পূজা পরিদর্শনে গিয়ে বলেছে, "একটি মহল এই হত্যাকাণ্ডকে পুঁজি করে সাম্প্রদায়িক রাজনীতি শুরু করে দিয়েছে। বিএনপি প্রচার করছে, ফেসবুকে ভারতবিরোধী স্ট্যাটাস দেওয়ায় নাকি তাকে হত্যা করা হয়েছে। এর মাধ্যমে বিএনপি সাম্প্রদায়িক রাজনীতির চর্চা করছে।"

আবরার হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকায় বুয়েট ছাত্রলীগের ১১ জন নেতাকর্মীকে বহিষ্কার করেছে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ। সেই ১১ জনের মধ্যে অমিত সাহার নাম নেই! ছাত্রলীগের বর্তমান কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্যও ইসকনের সাথে সম্পৃক্ত।

এদিকে, আবরার হত্যাকাণ্ড তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার কৃষ্ণপদ রায়কে!

কৃষ্ণপদ রায় ইতিমধ্যে হত্যাকাণ্ডের যে ভিডিওক্লিপ এডিট করে মিডিয়ায় ছেড়েছে, তাতে অমিত সাহা বা অন্য মূল খুনিরা নেই!

ইসকন-ভক্ত নওফেল-লেখক-কৃষ্ণপদরা কি ইসকন-ভক্ত অমিত সাহাকে আবরার খুনের দায় থেকে বাঁচাতে গভীর চক্রান্ত শুরু করেছে?

পঠিত : ২৭৭ বার

ads

মন্তব্য: ০