Alapon

উস্তাদ মওদূদী ও তাফসীরে জাকারিয়া প্রসঙ্গ....


তাফসীরে জাকারিয়াতে উস্তাদ মওদূদীর তাফসীর ''তাফহীমুল কুরআনের'' বাংলা অনুবাদ থেকে ব্যাপকভাবে হুবহু দাড়ি কমাসহ কপি করা হয়েছে। কিন্তু কোথাও রেফারেন্স হিসাবে তাফহীমুল কুরআন বা উস্তাদ মওদূদীর কথা বলা হয়নি। উল্টো সে জায়গাগুলোতে ফাতহুল কাদির বা অন্য রেফারেন্স দিয়ে কাজটা যে সুচিন্তিত সেটা প্রমাণ করলেন। এ নিয়ে ইসলামপন্থীদের পাড়ায় বেশ আলোচনা - সমালোচনা হচ্ছে। হওয়াটাই স্বাভাবিক। এ ব্যাপক প্রতিক্রিয়ার মূল কারণ হলো যাকারিয়া সাহেব উস্তাদ মওদূদী ও তাফহীমুল কুরআন নিয়ে প্রকাশ্যে সমালোচনা করে থাকেন। সেগুলোর ভাষাও যে খুব একাডেমিক হয় তা না। সুতরাং সাধারণদের সমালোচনার ভাষাও অনেকাংশে তীর্যকই হচ্ছে। আমি এই তীর্যকতাকে সমর্থন করি বা না করি তাতে কিছু যায় আসে না। বিষয়টা চলছে নিউটনের সূত্র অনুযায়ী - এভ্রি অ্যাকশন হ্যাজ এন ইকুয়াল এন্ড অপজিট রিঅ্যাকশন।

মূল কথায় আসি, প্রকৃতপক্ষে উস্তাদ মওদূদী হলেন এমন একজন, যাকে অনুসরণ করা যায়। যার চিন্তা থেকে খোরাক নেয়া যায়। তার কাজের একটাকে অপছন্দ করলে আরেকটাকে পছন্দ করতে হয়। তার একটা কিতাবকে বাদ দিলেও আরেকটা কিতাবকে বাদ দিতে পারবেন না। আপনি উস্তাদের ''তাফহীমুল কুরআন''কে অপছন্দ করলে ''আল জিহাদ''কে পছন্দ করবেন। ''আল জিহাদ''কে অপছন্দ করবেন তো ''খেলাফত ও মুলুকিয়াত''কে পছন্দ করবেন। ''খেলাফত ও মুলুকিয়াত''কে অপছন্দ করবেন তো ''সুন্নতে রাসূলের আইনগত মর্যাদা''কে পছন্দ করবেন। এটাও ভালো লাগছে না? চিন্তার খোরাক পাচ্ছেন না? ''ইসলাম ও পাশ্চাত্য সভ্যতার দ্বন্ধ'' থেকে পাবেন। নয়তো ''ইসলাম ও জাতীয়তাবাদ'' থেকে পাবেন। অথবা ''কাদিয়ানি সমস্যা'' বা ''ইসলাম ও আধুনিক ব্যাংকিং'' থেকে পাবেন। উস্তাদের রাজনৈতিক ধারা পছন্দ হচ্ছে না? তবে অর্থনৈতিক ধারা পছন্দ হবে। তাও হচ্ছে না? ''রাসায়েল ও মাসায়েল'' খুলুন, মধ্যপন্থার ফিকহী সমাধান পাবেন। নির্বাচন পদ্ধতির সাথে একমত না হতে পারেন তবে তরবিয়ত পদ্ধতির প্রশংসা করবেন।

মোদ্দাকথা, চেতনে- অবচেতনে, একমত হয়ে বা দ্বিমত হয়েও অথবা বিরোধীতা করা সত্ত্বেও উস্তাদ মওদূদীর ব্যাপক চিন্তা ও তৎপরতার মধ্যে থেকে কোনটি না কোনটির আপনি অনুসরণ করতে পারেন। তার চিন্তা থেকে খোরাক নিতে পারেন। এখন বিষয় হলো আপনি যদি তা স্বীকার করেন তাহলে উস্তাদের কৃতজ্ঞতা স্বীকার করলেন। আর যদি তা না করেন তাহলেও অকৃতজ্ঞচিত্তে আপনি উস্তাদের চিন্তার রাজ্যে বিচরণ করছেন। এটাই উস্তাদের মুনশিয়ানা। এটাই উস্তাদের মহত্ব। বড়ত্ব। আপনার স্বীকৃতির অভাবে উস্তাদের এ গুণে কোন কমতি হবে না। ইনশাআল্লাহ

তাফসীরে জাকারিয়া আদতে কোন ব্যাখাসুলভ তাফসীর নয়। এতে বিভিন্ন তাফসীর থেকে সহিহ ও মূল কথাগুলোকে একত্রিত করা হয়েছে শুধু। সেজন্য এটি মূলত একটি তাফসীর সংকলন। এখানে জাকারিয়া সাহেবের মূফাসসিরসুলভ দক্ষতা খুব কমই প্রকাশিত হয়েছে। অনেকে বলবেন, নিজের মনমতো ব্যাখ্যা করেননি কারণ তাফসীর মনমতো করা যায় না। ঠিক। কিন্তু মুফাসসির তো তিনিই যিনি কুরআন সুন্নাহ আছার ও অতীত মুফাসসিরদের তাফসীরের ভিত্তিতে নিজের বুঝকে বিশ্লেষণ করবেন। তাহলে কি তাফসীরে জাকারিয়া পড়বেন না? তাফসীরে জাকারিয়া পড়ুন। আমার কাছেও এ তাফসীর রয়েছে। কারণ এতে বিভিন্ন জায়গার সহিহ ও মূল কথাগুলোর সংকলন সংক্ষেপে পেয়ে যাবেন। এটাও আপনাকে উপকৃত করবে। ইনশাআল্লাহ...

- শাকিল

পঠিত : ৭২ বার

ads

মন্তব্য: ০