Alapon

আমার এ- জীবন



মানুষের জীবন গাছের সবুজ পাতার মতো। তার সবুজতা এক সময় লীন হয়ে যায়। শীত আসলে ঝরে যায়।

তদ্রুপ শীতের পাতার মতো আমাদের জীবনের পাতাও ঝরে যায়। ফাগুনের আগুন ঝরা দিনগুলোও চৈত্রের প্রখরতার কাছে হেরে যায়।

তবুও এই জীবনকে নিয়ে পড়ে থাকি। তাকে ফুলে ফলে সাজাতে ব্যাকুল হয়ে থাকি। শেষ গন্তব্য নিয়ে ভাবি না। আদি-আসল শহরে থাকার মতো সামান সংগ্রহ করি না। ঘুটঘুটে আঁধারের গায়ে আলো ছড়াবার বিষয় নিয়ে ভাবি না। আঁধার তাড়াতে আলোর মশালটা নিয়ে অগ্রসর হতে চাই না। নিজেকেই আঁধারের মাঝে বিলিন করে দিই। হয়তো-বা ভাবি --প্রশান্তি এখানেই। এভাবেই.....

নাহ! এখানেও না। এভাবেই না। প্রশান্তির প্রাণ ভোমরা প্রচুর ভনভন করে চারিদিকে। আমি খুঁজে পাই না। ধরতে পারি না।

কিন্তু তবুও দৌঁড়াই উল্টো পথে। উল্টো দিকে। প্রাণের প্রশান্তি খুঁজতে খুঁজতে হয়রান আমি। যেখানে খোঁজা দরকার খুঁজি না। যেভাবে প্রচেষ্টা দরকার করি না। দৌঁড়াতে দৌঁড়াতে একপর্যায়ে মন ভেঙে যায়। বুক ভেঙে যায়। চুরচুর হয়ে যায়... অশান্তির দাবানল জ্বলে ওঠে মনের মোহনায়। প্রাণের পরতে পরতে.....

আমি কাঁদি। কাঁদতে থাকি। প্রচুর কাঁদি। কাঁদতে কাঁদতে বুক ভাসাই। চোখ ভেজাই। বালিশের কোণ ভাসাই! কেউ দেখে না। কেউ বুঝে না। চুপিসারে। চুপিচাপি.....

আমি ফুলের কাছে যাই। জীবনটা তো ফুলের মতো মনে হয় মাঝেমধ্যে।

ফুলের সৌন্দর্যে বিমুগ্ধ হই। ফুলের সৌরভে বিমোহিত হই। কিন্তু ফুলের মতোন প্রস্ফুটিত হতে চাই না।

আলোর প্রদীপ কে না পছন্দ করে! আমিও করি। আলোর রেখা স্পষ্ট যখন আশেপাশে, তখন তা থেকে ছোপ ছোপ আলোর আভা আমিও ছুঁয়ে দেখতে চাই। কিন্তু সে আলোয় প্রদীপ্ত হতে চাই না। হই না। মনকে প্রদীপ্ত করতে পারি না। করি না...

ইসলাম একটা আলো। ইসলামের আলোয় আলোকিত হতে চাই না। ইসলামের গৌরবে প্রদীপ্ত হতে প্রচুর পরিমাণ প্রচেষ্টা দরকার। আমি সেই প্রচেষ্টা করি না। এই না -চাওয়াটা, না-করাটা শুধু আমি না ; আমরা যাঁদের আইডল-অনুপ্রেরণা হিশেবে নিই তারাও এই একই কাজ করে। তখন হতাশা আমাদের আরো বেশি জেঁকে ধরে।

আমাদের মন তখন আরো পুড়ে যায়। ছাঁই হয়ে যায়। কাকে মানবো! কাকে ভাববো! অনুপ্রেরণা আর আইডল হিশেবে কাকে রাখবো! যাকেই রাখি সে-ই হতাশ করে! অন্তরালে সে তাঁর-ই আরেক রূপ। আরেক স্বরূপ। মুখোশপরা ......

হিজল বনে পালিয়ে যাওয়া পাখির মতোন জীবনের অভিধান হতে তখন আস্থা বিশ্বাস ভরসা ভালোবাসা ধার্মিকতা সব তরতর করে ভেসে যায়। পালিয়ে যায়। লুকিয়ে যায়। হারিয়ে যায়.....

কিন্তু, জীবন তো একটা নদীর মতো। সে বহমান। সে থেমে থাকে না। যতোদিন হায়াত থাকে ততোদিন চলে। চালাতে হয় যে.......

আমার মনে পড়ে যায় মিলোডিয়াস কন্ঠের জাদুকর শিল্পী ''সাইফুল্লাহ মানসুর"- এর সুরে গাওয়া জনপ্রিয় সেই গানটি, যেখানে সুমহান অসীম আল্লাহর কাছে তাঁর আবেদন ছিলো --বহতা নদীর মতো আমার এ জীবন, হে আমার রব তুমি করো গো গ্রহণ.....

আমিও তাই আমার রব্বের কাছে বলি; আমার এই জীবনটা বহমান হোক। বহতা নদীর মতো তিনি তা গ্রহণ করুক...

তিনি তা গ্রহণ করলে আমাকে পরীক্ষা করবেন। যাচাই বাছাই করবেন। আমার ঈমান কতোটা দৃঢ়তায় পূর্ণ। আমার বিশ্বাস তার কর্মের বাগানে কতোটা বিস্তৃত --তা পরখ করবেন। কথাগুলো তিনি সুরাহ আল-বাকারার ১৫৫ নাম্বার আয়াতে সেসবই বলেছেন। আর শেষাংশে তিনি সুসংবাদের দৃপ্ত ঘোষণা দিয়েছেন!

আমি প্রস্তুত সে-ই পরীক্ষায় অংশ নিতে। আমার দরকার সুসংবাদ। যে সুসংবাদে আমি আনন্দিত হবো। আমার জীবন-মনের মিনারে বন্ধ হয়ে যাওয়া সেই প্রশান্তির গান আবারো বেজে ওঠবে। আমি সেই সংবাদে প্রফুল্লচিত্তে ছুটে চলবো অনন্ত অসীম জীবনের পানে.....


||আমার এ-জীবন||
-রেদওয়ান রাওয়াহা

★ লেখাটা সাইফুল্লাহ মানসুরের কিছু গানের অনুপ্রেরণা হতে লেখা।]

পঠিত : ৬৮ বার

ads

মন্তব্য: ২

২০২০-০৯-১৫ ১১:৩৫

User
আহমেদ আফগানী

ভালো লেখা হয়েছে। একটি প্রাসঙ্গিক ছবি যুক্ত করে দিয়েন প্লিজ। তাহলে দেখতে ভালো দেখাবে।

submit

২০২০-০৯-১৬ ১২:৫৪

User
রেদওয়ান রাওয়াহা :

in sha allah

submit