Alapon

অব্যাহতভাবে টু ডু লিস্ট করে কাজ চালিয়ে যান, জীবন বদলাবেই.....

জীবনে এমন অসংখ্যবার হয়েছে যে, আমি নিজের জন্য বৃহৎ এক কাজের টু ডু লিস্ট তৈরী করেছি কিন্তু সফল করতে পারি নি বলে দিন শেষে সেটা ছুঁড়ে ফেলে দিয়েছি। কয়েকদিন হতাশায় পথে পথে ঘুরে আবার শুরু করেছি। এমন অহর্নিশ ভাঙা-গড়ার ভিতর দিয়েই মূলত জীবন এগিয়ে চলে। আপনার ক্ষেত্রেও কি এমন হয়েছে যে, আপনি একটি টু ডু লিস্ট তৈরি করেছেন আর কাজ শেষ করা হয় নি বলে ছুঁড়ে ফেলে দিয়েছেন সেটা? কিন্তু আপনি কি জানেন, কাজ শেষ হোক বা না হোক টু ডু লিস্টের একটি গোপন চমত্‍কার ভূমিকা রয়েছে আপনার কর্মক্ষমতা বাড়ানোর ক্ষেত্রে? গবেষণায় উঠে এসেছে এমনই তথ্য।


গত সেপ্টেম্বরে ফাস্ট কোম্পানি নামক ম্যাগাজিনের কলামে একটি বিতর্ক তোলেন মনোবিজ্ঞানী আর্ট মার্কম্যান। তিনি বলেন, টু ডু লিস্ট কাজের গতি বাড়ায়। এমনকি হতে পারে আপনি লিস্টের কাজগুলো কখনো শেষই করলেন না, তবু এটি চমত্‍কার প্রভাব ফেলবে আপনার জীবনে।


মার্কম্যান তার যুক্তির পক্ষে কিছু বিষয়কে কারণ হিসেবে তুলে ধরেন। তিনি বলেন, 'লক্ষ্য নির্ধারণের সময় যে কাজগুলো করবেন বলে আপনি ঠিকও করেন নি সেই কাজগুলোই অনেক সময় অন্য ছোট ছোট কাজের সাথে সমন্বিত হয়ে করা হয়ে যায়।

অর্থাত্‍ আপনার কাজের বিষয়সূচি যদি বদলেও যায়, লক্ষ্য অর্জনের যে অনুশীলনের মাঝে আপনি ছিলেন এবং আপনার যে চিন্তার প্রক্রিয়া তা পরবর্তী কাজের জন্যেও আপনাকে সাহায্য করবে।'


মার্কম্যান একটি বই লেখার চেষ্টা করার উদাহরণ দেন। সেটাকে যদি আমরা একটি প্রজেক্ট লেখার কাজের সাথে তুলনা করি, তাহলে দেখব আগে আমাদের কিছু গবেষণা করতে হবে, তারপর সেগুলো লিখতে হবে, এরপর আবার পরে দেখতে হবে সব ঠিক আছে কিনা এবং আরও অনেক ছোট ছোট কাজ হয়ত করতে হবে। অর্থাত্‍ একটি কাজকে সফল করতে দরকার হবে আরও অনেক কাজের। আপনি যখনই আপনার টু ডু লিস্টে লিখবেন 'প্রজেক্ট রিপোর্ট', আপনার মাথায় এই সংক্রান্ত সকল কাজই চলে আসবে। এরফলে দিনের অনেকটা সময় আপনি বরাদ্দ করবেন প্রজেক্টের জন্য। অন্তত মানসিকভাবে নিজেকে প্রস্তুত করবেন, বার বার নিজেকে তাড়া দেবেন যে এই কাজটি আপনাকে করতে হবে।


মার্কম্যান কাজের 'বিস্তার' ঘটানো এবং 'স্মার্ট গোল' এর একটি সমন্বয়ের কথা বলেন, একটি কৌশল যা চার্লস দুহিগ ব্যাখ্যা করেছেন তার 'Smarter Faster Better' বইয়ে। কৌশলটি হল, শুধু লক্ষ্যটিকে তালিকাভূক্ত করলে হবে না, বরং লক্ষ্য অর্জনের জন্য তার সাথে জড়িত ছোট ছোট কাজের তালিকা করে ফেলতে হবে আপনাকে। আপনার বড় পরিকল্পনাটি বদলে যেতেও পারে কিন্তু তবু কিছু কাজ করা হবে আপনার, যা অন্য কাজের জন্য হবে দূর্দান্ত সহায়ক।


টু ডু লিস্ট করা মানেই আপনার কাজের একটি বিশাল তালিকা আপনার চোখের সামনে থাকা। সেই কাজ শেষ করার টার্গেট হতে পারে এক সপ্তাহ, এক মাস অথবা এক বছর। সারাক্ষণ আপনি যখন দেখছেন, আপনাকে এত কাজ করতে হবে তখন চাইলেও কাজ না করে থাকতে পারবেন না আপনি। এভাবে বাড়বে আপনার উদ্দীপনা। শেষ পর্যন্ত অনেক কাজ হয়ত করতে পারবেন না, কিন্তু ঠিকই এগিয়ে যাবে বাকী কাজগুলো। টু ডু লিস্ট না করলে এই কাজগুলো হয়ত কোনটাই শেষ হত না অথবা গতি হত অনেক ধীর।


তাই নিজেকে আরও উদ্যমী করতে একটি কাজের তালিকা করে ফেলুন আজই। রঙ্গীন কাগজের সেই তালিকা লাগিয়ে দিন এমন জায়গায় যেখান থেকে অবশ্যই চোখে পড়বে আপনার। এভাবে চালিয়ে যেতে থাকুন বিরতিহীনভাবে। বিজয় এসে আপনার পায়ে লুটিয়ে পড়বেই পড়বে ঠিক একদিন।

পঠিত : ২৫ বার

ads

মন্তব্য: ০