Alapon

“সমাজ সংস্কার চিন্তা-(০১)”

হঠাৎ করেই সমাজে কোনো পরিবর্তন আনা অসম্ভব ব্যাপার! আপনার মস্তিস্কপ্রসূত যেকোনো ইতবাচক চিন্তাধরার প্রতিফলন যদি সমাজে বিস্তার করতে চান তবে প্রথমে আপনাকে ছোট থেকে শুরু করতে হবে।



হঠাৎ করেই যেমন বাতাস থেকে একটা বট বৃক্ষ হয়ে যায় না, তেমনি হঠাৎ করেই বিগত কয়েক পুরুষ ধরে চলে আসা কোনো সামাজিক রীতিতে পরিবর্তন, পরিবর্ধন, কিংবা সংশোধন করার চিন্তা করা মানে রীতিমতো বোকামির পরিচয় দেয়া। এর জন্য চারা রোপন করা চাই। আজকের রোপনকৃত চারা আস্তে আস্তে করে একসময় বটবৃক্ষের ন্যায় বড় হবে।

আজকের শিশুরাই আগামির ভবিষ্যৎতাই সমাজে নতুন কোনো পরিবর্তন আনতে আপনার পরবর্তী প্রজন্মকে, কিংবা এখন যারা আপনার আশে পাশে শিশু রয়েছে তাদেরকে সুশিক্ষা দান করুন। তাদের সাথে আপনার বন্ধত্বপূর্ণ সম্পর্ক গড়ে তুলুন। কোনটা ভাল, কোনটা মন্দ সেটার সম্পর্কে এখনই তাদেরকে ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি থেকে বিশ্লেষন করে বুঝান। আপনি ছোটবেলায় কোন জিনিসটি আপনার অভিভাবকদের কাছ থেকে পাননি সেটা সম্পর্কে চিন্তা করুন, আপনার পরবর্তী প্রজন্মের যাতে সেই অভাবগুলো না থাকে সেভাবে তাদেরকে গড়ে তুলুন। সমাজকে বিভিন্ন ধরনের ব্যাধি থেকে মুক্ত করতে আপনার ব্যাক্তিগত এতটুকু কাজই আপনার পরিবার, মহল্লা, সমাজ থেকে আস্তে আস্তে পুরো দেশকে পরিবর্তন করে দিতে পারে। তাই সমাজকে সংস্কার করতে যার যার জায়গা থেকে নিজ নিজ দায়িত্ব পালন করুন। যার যতটুকু সামর্থ আছে সে অনুযায়ী সৎ কাজের আদেশ দিন, অসৎ কাজের নিষেধ করুন। সমাজের আবর্জনা সুদ, ঘুস, যৌতুক, ইভ টিজিং, মাদক, চুরি- ডাকাতি, হিংসা, রেসারেসি, সন্ত্রাসবাদ ইত্যাদি থেকে সমাজকে সংস্কার করুন।

✍️শামীম,
✉️ [email protected]
সমাজ সংস্কার চিন্তা, পর্বঃ (০১),
সমাজ সংস্কার চিন্তা, পর্ব (০২)
২৬/০১/২১ ইং,

পঠিত : ২৪১ বার

ads

মন্তব্য: ০