Alapon

যতো দোষ সব মুসলিম মৌলবাদিদের, আর মোদির হিন্দুত্ববাদ ধোয়া তুলসি পাতা!



দিন কয়েক পূর্বে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেছিলেন, ‘তালেবান সরকারকে মৌলবাদ ত্যাগ করতে হবে। সাধারণ নাগরিকদের অধিকার এবং নারীদের অধিকার নিশ্চিত করতে হবে। তবেই তালেবান সরকারের সাথে ভারত সম্পর্ক স্থাপন করবে; এর পূর্বে নয়।’

মোদির এই বক্তব্য শুনে খুব হেসেছিলাম। মোদি সরকারের আমলে ভারতের মুসলিমরাই যেখানে নাগরিক অধিকার থেকে বঞ্চিত, সেখানে মোদি কিনা বলছে, তালেবান সরকারকে তাদের নাগরিকদের অধিকার নিশ্চিত করতে হবে!

এর আগে মোদি সরকার এনআরসি ও সিএএ এর মাধ্যমে কয়েক লাখ মুসলিম এবং দলিত হিন্দুকে নাগরিক অধিকার থেকে বঞ্জিত করেছে এবং তাদের একটা নির্দিষ্ট এলাকার মধ্যে বন্দি করে রাখা হয়েছে। আর এখন আসামের দরং জেলায় ৭৭ হাজার বিগা জমিতে শিব মন্দির নির্মাণ করা হবে। আর এই বিশাল সংখ্যক জমি মুসলিমদের উচ্চেদ করে দখল করা হচ্ছে। উল্লেখ্য, আসামের দরং জেলায় একটি শিব মন্দির রয়েছে। এখন সেই শিব মন্দিরটাকে বিশাল রূপ দেওয়া হবে। তারই অংশ হিসেবে সিদ্ধান্ত হয় ৭৭ হাজার বিঘা জমির উপর এই মন্দির নির্মাণ করা হবে। সে লক্ষ্যে উক্ত অঞ্চলেরর মুসলিম অধ্যুসিত এলাকা থেকে ২ হাজারের বেশি মুসলিম পরিবারকে জোর পূর্বক উচ্ছেদ করা হয়েছে। যাদের উচ্ছেদ করা হয়েছে, তারা ভারতের বৈধ নাগরিক এবং তাদের জমির বৈধ কাগজও আছে। কিন্তু তারপরও ভারতের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তাদের জোরপূর্বক উচ্ছেদ করেছে, ঘর বাড়ি ভেঙ্গে দিয়েছে। এই উচ্ছেদ অভিযানের বিরোধীতা করছে পুলিশ তাদের উপর গুলি চালায় এবং অফিসিয়াল ভাষ্যমতে ২ জন মারা যায়। আর আন অফিসিয়ালি এই মৃত্যুর সংখ্যা আরও বেশি।

যেখানে খোদ ভারতেই ধর্মের দোহাই দিয়ে মানুষদের ঘর বাড়ি থেকে উচ্ছেদ করা হচ্ছে, গুলি করে হত্যা করা হচ্ছে, হত্যা করার পর মৃত লাশের উপর নৃত্য করা হচ্ছে, সেই ভারতই আবার তালেবান সরকারকে নাগরিক অধিকার নিশ্চিত করতে বলে। এটাকেই হয়তো ডাবল স্ট্যান্ডার্ড গিরি বলে!

আরও মজার বিষয় হচ্ছে, বিশ্বের তাবোত মিডিয়া আফগানিস্তান নিয়ে ব্যস্ত! তারা অপেক্ষায় আছে, কখন তালেবানরা ধর্মের দোহাই দিয়ে জনগণের উপর নির্যাতন চালায়। আর নির্যাতন চালানো মাত্রই সেটা লাইভ টেলিকাস্টের মাধ্যমে সারা বিশ্বে ছড়িয়ে দিবে! কিন্তু অন্য দিকে মোদি সরকার যে ধর্মের দোহাই দিয়ে মন্দির নির্মাণের নাম করে মানুষদের ঘর বাড়ি থেকে বিতাড়ন করছে, সেটাকে আর মৌলবাদি বলে প্রচার করছে না! আমি নিশ্চিত করে বলতে পারি, এই কাজ যদি তালেবানরা করতো তাহলে এতোক্ষণে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে জরুরি মিটিং বসে যেতো! কিন্তু মোদি যে হিন্দু মৌলবাদের দোহাই দিয়ে ভারতের মুসলিমদের উপর নির্যাতন চালিয়ে যাচ্ছে, তা নিয়ে আর বিশ্ব উদ্বিগ্ন নয়। যতো দোষ সব মুসলি মৌলবাদিদের, মোদি ধোয়া তুলসি পাতা!

পঠিত : ২৮৪ বার

ads

মন্তব্য: ০