Alapon

এসো, ঐক্যের মহাস্রোতে...

"আমি দেখতে পাচ্ছি, বাংলাদেশের ভাক্কাকাশে উত্তর গগনে কালো মেঘ জমা হয়েছে.........., যার সুবহে সাদিক হওয়া অসম্ভব"— উক্তিটি বিশিষ্ট আলেমে-দ্বীন হযরত আল্লামা দেলোয়ার হোসাইন সাঈদী'র। একটু খেয়াল করলে বোঝা যায় গত এক যুগ আগে তার করা ভবিষ্যদ্বানী আজ অক্ষরে অক্ষরে বাস্তবায়ন হচ্ছে। অহি নাযিলের আটটি পন্থার মধ্যে ইলহাম ও সত্য স্বপ্নযোগে অন্যতম দু'টি। যার দৃশ্যত জ্বলন্ত উদাহরণ মাওলানা সাঈদী ও মাওলানা কাজী ইবরাহীম।

সম্প্রতি কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন ও অন্যান্য আলোচিত বিষয় নিয়ে বিভ্রান্তিকর তথ্য পরিবেষণের দায়ে দক্ষিণ এশিয়ার বিশিষ্ট ইসলামিক স্কলার মাওলানা কাজী ইবরাহীম'কে আটক করে কথিত নিরাপত্তা বাহিনী। সাম্প্রতিক সময়ে বেশ কয়েকজন আলেম গ্রেফতার হওয়ার পর স্বাভাবিকভাবেই আঁচ করা যাচ্ছে পরবর্তী টার্গেট কারা! এটা উদ্বেগ বা উৎকন্ঠার বিষয় নয়। উদ্বেগ আর উৎকন্ঠার বিষয় হলো আমাদের আমজনতা মুসলিম উম্মাহর নিরবতা। হযরত রাাসূলে পাক (সা.) এর মুখনিঃসৃত বাণী- মৌনতা সম্মতির লক্ষণ। জালিমদের বর্বরচিত অত্যাচার, জুলুম, অবিচার নিরবে নিভৃতে সহ্য করে যাওয়া তাদের মদদ দেওয়ারই শামিল। আমাদের নিরবতা কি রাসূলের পবিত্র মুখের বাণীর দিকে ইঙ্গিত বহন করে না? তাহলে কি আমরা জালিমদের অন্তর্ভুক্ত হয়ে গেলাম?

প্রিয় বন্ধু,
আর কতকাল তুমি এই নিরবতার মহাজালে বন্দি থাকবে? কতসময় সহ্য নামক ধৈর্য্য ধরে একটা জাতির পতনের সহায়ক হবে? হ্যাঁ, এটাই সময় তোমার জেগে ওঠার! এটাই সুযোগ নিজের স্বাধীনতা অর্জনের মঞ্চে শামিল হবার! এটাই সময় তোমার অন্তরিক্ষে লুকায়িত সালাহউদ্দীন আইয়ুবীর ন্যায় সিংহ হুংকার দেওয়ার!

জননন্দিত নেতা মাওলানা দেলোয়ার হোসাইন সাঈদীর সেই পূর্বাভাস কি আজো আমাদের বিবেকের টনক নড়াতে পারেনি? একের পর এক আলেম আটক, গুম, হত্যা, মামলা- জুলুম নিশ্চয়ই কোন শুভ কিছুর ইঙ্গিত নয়। আসুন, ঐক্যবদ্ধ হয়ে জালিমের বিরুদ্ধে হুংকার ছাড়ি মরুসিংস ওমর মোখতার, সম্রাট সালাহউদ্দীন আইয়ুবী, বদিউজ্জামান নূরসী, মতিউর রহমান নিযামীর ন্যায়।

পঠিত : ৪৪ বার

ads

মন্তব্য: ০