Alapon

Mawdudi and the making of islamic revaivalism



একটি সামাজিক আন্দোলন হিসেবে ইসলামী পুনর্জাগরণের বিকাশ ঘনিষ্ঠভাবে সুনির্দিষ্ট ব্যক্তিদের জীবন ইতিহাস এবং তাদের বুদ্ধিবৃত্তিক অবদানের সাথে জড়িত থাকে। যারা গঠনমূলক ধারণা তৈরি করে এবং বিভিন্ন সামাজিক গোষ্ঠীর উদ্বেগ নিয়ে কথা বলে অর্থাৎ কোন ধারনাগুলি অন্তর্ভুক্ত করা হবে এবং কোনটি হবে না তা নির্বাচন করে জনসাধারণের বিতর্কের অবসান ঘটাতে একটি সুনির্দিষ্ট মতাদর্শ তৈরি করে ।

আমরা এই ধরণের চিন্তাবিদদের চিন্তা ও জীবন কর্মের দিকে দৃষ্টিপাত করলে, মাওলানা মওদূদী (১৯০৩-১৯৭৯), আয়াতুল্লাহ খোমেনি (১৯০০-১৯৮৯), সাইয়্যেদ কুতুব (১৯০৬-১৯৬৬) এর মতো পুরুষদের জীবনী এবং ধারণাগুলি (Ideas) সমসাময়িক ইসলামিক চিন্তা ও কর্মের ঐতিহাসিক অনুসন্ধানের জন্য শুধুমাত্র গুরুত্বপূর্ণই নয় বরং তাদের চিন্তা সমাজ, রাষ্ট্র ও ব্যক্তির আত্ম উন্নয়নের জন্য অপরিহার্য । যারা আমাদেরকে সুনির্দিষ্ট প্রক্রিয়া এবং ঐতিহাসিক ঘটনাবলীর মধ্যে ইসলামী পুনর্জাগরণের শিকড় খুঁজে বের করার তাগিদ দেয় ।

মাওলানা সাইয়্যেদ আবুল আ'লা মওদূদীর জীবন ও চিন্তাধারা বিভিন্ন কারণে গুরুত্বপূর্ণ এবং বিশেষভাবে মনোযোগের যোগ্য। তিনি প্রথম ইসলামী চিন্তাবিদদের মধ্যে একজন, যিনি ইসলামের একটি পদ্ধতিগত রাজনৈতিক পাঠ এবং তার দৃষ্টিভঙ্গি উপলব্ধির মাধ্যমে সামাজিক কর্মের পরিকল্পনা তৈরি করেছিলেন ।

একটি ইসলামী রাষ্ট্রের জন্য, একটি যথাযথ ইসলামী আদর্শের সৃষ্টি, যা সমসাময়িক পুনরুজ্জীবনবাদের উত্থানের দিকে পরিচালিত করে এমন একটি অপরিহার্য পথ তৈরি করা ।
তাঁর চিন্তাগুলি খুবই কার্যকরী এবং তাঁর রাজনৈতিক দল, জামাত-ই ইসলামী (ইসলামী দল) অদম্য প্রচেষ্টায় প্রথমে ভারত ও পাকিস্তানে এবং পরে বাংলাদেশে কার্যকরী ভূমিকা রাখে।
নিঃসন্দেহে মাওলানা মওদূদী ইসলামের পুনরুজ্জীবনবাদী চিন্তাবিদদের মধ্যে সবচেয়ে প্রভাবশালী একজন চিন্তানায়ক। তার চিন্তা মরক্কো থেকে মালয়েশিয়া পর্যন্ত ইসলামী পুনরুজ্জীবনবাদীদের প্রভাবিত করেছে। সাইয়্যিদ কুতুবের মতো চিন্তাবিদদের উপর এবং ইরানী বিপ্লবের (১৯৭৮-১৯৭৯) মতো গুরুত্বপূর্ণ আন্দোলনে তাঁর চিন্তা কতটা প্রভাবিত করেছে তা বলার অপেক্ষা রাখে না। এ ছাড়াও মধ্য এশিয়া, উত্তর আফ্রিকা এবং দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় মাওলানার চিন্তা ও দর্শন ব্যাপকভাবে বিস্তার করেছিল।

মাওলানা মওদূদীর মতাদর্শ ইসলামী পুনর্জাগরণের প্রকৃতিকে একটি বুদ্ধিবৃত্তিক এবং একটি রাজনৈতিক আন্দোলন হিসেবে ব্যাখ্যা করে। ইসলামী মতাদর্শ বাস্তবায়ন করতে গেলে, একটি সামাজিক আন্দোলনের মাধ্যমেই একটি ইসলামী জাতি রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা হতে পারে। মওদূদী ইসলামী পুনরুজ্জীবনবাদকে তাদের জন্য পছন্দের আদর্শ মন্ত্র বানিয়েছেন যারা প্রান্তিক এবং বিচ্ছিন্ন বোধ করেন। মওদূদীর চিন্তাধারা ভারতীয় মুসলিম সম্প্রদায়ের কাছে আশীর্বাদ হয়ে আবির্ভূত হয়। সেই সময়ে মুসলমানদের রাজনৈতিক ঐকমত্য ও ঐক্যবদ্ধ নেতৃত্বের অভাব ছিল। তারা ভাষাগত এবং জাতিগত ভাবে বিভক্ত ছিল।

ভারতীয় মুসলমানরা প্রথম বিশ্বযুদ্ধের পরে খিলাফত রক্ষা করতে চেয়েছিল এবং কিভাবে কর্তৃত্বে বসা যায় সেই চেষ্টাই করেছিল। মাওলানা মওদূদীর চিন্তা এখানে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখে। তিনি তাঁর উদ্দেশ্যটি উপলব্ধি করানোর জন্য মুসলিম পরিচয়ের উপর গুরুত্ব আরোপ করেন এবং ঐক্য ও সমঝোতা গড়ে তোলার চেষ্টা করেন, যাতে মুসলমানদের প্রয়োজনগুলি সমাধান করা যায়। তিনি বেশ কিছু পদক্ষেপ নেন তার মধ্যে ভারতীয় হিন্দুত্ববাদের মুখে ভারতীয় মুসলিমদের পরিচয় তুলে ধরা অন্যতম। তিনি মুসলিম সংস্কৃতি ,ঐতিহ্য , দৃষ্টিভঙ্গি ও মুসলিম শাসনের ঐতিহাসিক সত্যতা তুলে ধরেন ।

একজন রাজনৈতিক কর্মী হিসেবে, তিনি মুসলিম সম্প্রদায়কে শক্তিশালী করার এবং রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডকে বৈধতা দেওয়ার জন্য ইসলামের শক্তিকে একটি প্রতীক হিসেবে বুঝতেন। ঐতিহ্যগতভাবে তিনি বিশ্বাস করতেন মুসলমানদের শাসন করার যেমন অধিকার থাকবে তেমনি অমুসলিম আইনের অধীন জীবন যাপন না করার অধিকারও থাকতে হবে।
মাওলানা মওদূদী ভারতীয় মুসলমানদের সংস্কৃতিক ও আদর্শিক মূল্যবোধকে আত্মীকরণের মাধ্যমে ইসলামি হুকুমত প্রতিষ্ঠা করতে চেয়েছিলেন। উদ্দেশ্য ছিল হিন্দু সাংস্কৃতিক প্রভাব থেকে ইসলামী সংস্কৃতি-সভ্যতার হেফাজত করা এবং শুধু হেফাজত নয় একটি সুনির্দিষ্ট মতাদর্শ তৈরি করা, যার দরুন একটি কল্যাণ রাষ্ট্রের মাধ্যমে একটি মুসলিম উত্তরাধিকার সৃষ্টি করা।যার ফলে মুসলমানদের স্বতন্ত্র গুণাবলী, সাংস্কৃতিক পরিচয় এবং সামাজিক মূল্যবোধ সহ আরও অনেক কিছু নিশ্চিত করার মাধ্যমে দুর্বল এবং উদ্বিগ্ন মুসলিম সম্প্রদায়ের ব্যক্তিত্বের পুনরুজ্জীবন ঘটানো।

কিতাবটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ মনে হয়েছে । এই ধরণের কিতাব অনুবাদের ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার পাওয়া উচিত। যে বিষয়গুলি আলোচনা হয়েছে এই বইয়ে- The Formative Years, The Turn to Revivalism, Islam Reinterpreted, Faith and Ideology, The Islamic Revolution, The Islamic State, A New Islam And An Old Mandate in a New Age: Mawdudi's Authority।

সাইয়্যেদ ভেলি রেজা নাসের মাওলানা মওদূদীর রাজনৈতিক দর্শন আত্মীকরণের মাধ্যমে ইসলামি পুনরুজ্জীবনবাদ আলোচনা করেছেন। যা সমসাময়িক রাজনৈতিক চিন্তাধারায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে মনে করি।

পঠিত : ৪৫ বার

ads

মন্তব্য: ০