Alapon

সকল আলিমের কি রাজনীতি করার প্রয়োজন আছে...?



সকল আলিমকে রাজনীতি করা লাগবে না। এটা একটু অস্পষ্ট কথা। অর্থাৎ একদিক থেকে সঠিক, অন্যদিক থেকে ভুল।

সকল আলিমকে রাজনীতি করা লাগবে না। এটা এই অর্থে সঠিক যে, সকল আলিমকে নির্বাচনে দাঁড়াতে হবে না, রাস্তাঘাটে গিয়ে মারামারি করতে হবে না। গরম গরম সরকার ফেলে দেওয়ার বক্তব্যও দিতে হবে না।

তবে এই অর্থে ভুল যে, রাজনীতি করা লাগবে না মানে তাকে জুলুমের প্রতি ন্যূনতম ঘৃণাও পোষণ করা লাগবে না। ঈমানের সর্বনিম্ন স্তর হলো জুলুমের প্রতি অন্তত অন্তরে ঘৃণা পোষন করা। কোনো ব্যক্তি যদি জালিম সরকারের গুনগান গায়, সে আলিম হওয়া তো দূরের কথা সাধারণ মুসলিমের মানদণ্ডেও উত্তীর্ণ হতে পারে না।

একজন আলিম জালিমের প্রতি অন্তরে ঘৃণা পোষণ করে কিনা তা প্রকাশ পাবে তার প্রচারিত শিক্ষায়। তিনি জুলুমের বিরুদ্ধে মানুষকে সচেতন করেন কিনা! তার তারবিয়াতে জুলুমের প্রতি ঘৃণা আছে কিনা! জুলুমের প্রতি প্রতিবাদ আছে কিনা! কিংবা তিনি সুযোগ পেলেই জালিমকে থ্যাংকিউ দিতে চান কিনা!

সর্বোপরি, একজন আলিমের শিক্ষায় আল্লাহর জমিনে দ্বীন কায়েমের উপাদান আছে কিনা তাও আমাদের দেখতে হবে। দ্বীন কায়েমের কাজ মানে নেসেসারিলি নির্বাচনই বোঝাচ্ছি না। অর্থাৎ তিনি অন্তত দ্বীন প্রতিষ্ঠার প্রয়োজনীয়তা ব্যাখ্যা করেন কিনা! যদি তিনি তা না করে থাকেন এবং যদি কোনো আলিমের মূল খুঁটি জালিম স্বৈরশাসক হয়ে থাকে, হোক তা কোনো সুদূর দেশের। তবে এই সমম্ত আলিম আপনার ভয়ানক ক্ষতি করবে।

আপনি মজলুম হলেও সে কোনো প্রতিবাদ করবে না। আপনি নিগৃহীত হলেও তার তাতে কিছু যায় আসে না। আপনার অধিকার লুট হয়ে গেলেও সে কিছু বলবে না। কারণ, সে আপনার আলিম নয়, সে স্বৈরাচারের, সে জালিমের। ইসলামে যেমন নামাজ রোজা ফরজ, তেমনি ইসলামে জুলুমের প্রতিকারও ফরজ। একটাকে বাদ দিয়ে অন্যটা পূর্ণতা পাবে না।

পঠিত : ৮৩৩ বার

মন্তব্য: ০