Alapon

কোটা বাতিলের দাবিতে প্রয়োজন একতা

“আপনা মাংসে হরিণা বৈরী” চর্যাপদের একটা প্রবাদ বাক্য। যার ভাবার্থ হলো হরিণের মাংস সুস্বাদু হওয়ার কারণে হরিণ নিজেই নিজের শত্রু। তার মাংসের স্বাদে তাকে আক্রমণ করে অন্যান্য প্রাণীরা। ঠিক সেভাবেই বাংলাদেশের স্বাধীন, সবল, সুস্থ নাগরিক হওয়া এখন আমাদের চাকুরীর জন্য বিপদ ও ক্ষতির কারণ।

দেশে এখন খাঁটি বাঙালি কিংবা সুস্থ মানুষদের পরিণাম ভয়াবহ। আসুন একটা পর্যালোচনা দেখি:-

“দেশের মোট জনসংখ্যা =১৬,৫১,৫৮,৬১৬জন।
মুক্তিযোদ্ধা =২ লাখ। কোটা=৩০%
প্রতিবন্ধী =২০লাখ ১৬ হাজার। কোটা =১%
উপজাতি =১৫লাখ ৮৬ হাজার। কোটা =৫%
নারী কোটা =১০%। জেলা কোটা =১০%
----------------------মোট কোটা =৫৬%
৯৭.৩৭% মানুষের জন্য কোটা ৪৪%!
আর মাত্র ২.৬৩% মানুষের জন্য কোটা ৫৬%!
----
মনে করুন ৪৭তম বিসিএস-এ সরকারীভাবে ২০২৪জন ক্যাডার নিয়োগ দেয়া হবে। ইন্টারভিউ কল করা হয়েছে। যারা উত্তির্ণ হবেন তাদের মধ্যে
মুক্তিযোদ্ধা =২ লাখের জন্য =৩০% কোটা
প্রতিবন্ধী =২০লাখ ১৬ হাজারের জন্য =১%
উপজাতি =১৫লাখ ৮৬ হাজারের জন্য =৫%
নারীদের জন্য =১০%
বিশেষ জেলার জন্য =১০%

সর্বমোট ২.৬৩% মানুষের জন্য =৫৬% কোটা=১১৩৪টি বিসিএস ক্যাডার পদ বরাদ্দ। আর সাধারন ৯৭.৩৭% মানুষের জন্য ৪৪% কোটা= ৮৯০টি পদ বরাদ্দ।

এর মানে আপনি যত মেধাবীই হোন না কেন, চাকরি পাবেন না। আপনার চেয়ে কম মেধাবী- তার জন্য কোটা খালি থাকার কারনে চাকরি পেয়ে যাবে অনায়েশেই।

২.৬৩% লোক ১১৩৪টি পদ পাবে বিনা কন্ট্যাস্টে। আর ৯৭.৩৭% লোক ৮৯০টি পদের জন্য লড়তে হবে। এরপর ঘোষ, মামা, খালু তো লাগবেই।

তাই কোটাপথা বাদ সময়ের দাবী" [এই পর্যালোচনা একজন ভাইয়ের থেকে নেওয়া]

এই যে আপনি মেধাবী হয়েও ভবিষ্যতে অন্ধকার দেখছেন এর জন্য আপনাকে মুখ খুলতে হবে, সত্যের পক্ষে নিজের অধিকার আদায়ে কথা বলতে হবে। যারা দেশের জন্য প্রাণ দিয়েছে তারা সম্মানের, তারা যোগ্যতার মূল্য আদায় করার জন্য জীবন দিয়েছিল কিন্তু আমরা তাদের উত্তরসূরীদের অযোগ্য হলেও সুযোগ সুবিধা দিয়ে দিচ্ছি যা কখনও কাম্য নয়।

আসুন একতার বন্ধনে আওয়াজ তুলি!

— মোঃ আব্দুল মজিদ মারুফ
— ০৬ ই জুন, ২০২৪

পঠিত : ৭৬ বার

মন্তব্য: ০