Alapon

ছাত্রলীগনামাঃ রাবি থেকে ঢাবি

০২ ফেব্রুয়ারী ২০১৪। বর্ধিত ফি বাতিলের দাবিতে কয়েকদিন ধরেই আন্দোলনরত হাজারো সাধারন শিক্ষার্থী । শিক্ষার্থীদের সেই আন্দোলনে ছাত্রলীগও একাত্মতা ঘোষণা করে। কিন্তু সেই একই ছাত্রলীগ ০২ ফেব্রুয়ারিতে তৎকালীন ভিসি ডঃ মিজান উদ্দিন স্যার ও তৎকালীন প্রক্টোরিয়াল বডির সম্মতি ও সহযোগিতায় জামায়াত-শিবির এই আন্দোলনের মাধ্যমে অরাজকতার চেষ্টা করছে অভিযোগ তুলে প্রকাশ্যে গুলি বর্ষণ ও ককটেল নিক্ষেপ করে আন্দোলনরত সাধারন শিক্ষার্থীদের উপরে। আহত হয় অনেকে। চোখে গুলি লেগে চোখ নষ্ট হয় একজন শিক্ষার্থীর। আন্দোলনরত মেয়ে শিক্ষার্থীরাও সেদিন বাদ যায়নি ছাত্রলীগের সেইদিনের হামলা থেকে।

ফলাফলঃ আন্দোলনের কোন ফল ছাড়াই সমাপ্তি ঘটে। জয় হয় ভিসির, ছাত্রলীগের।

খুব ইচ্ছা হয় মিজান স্যারের কাছে জানতে, কত টাকা দিয়েছিলেন ছাত্রলীগকে সেই আন্দোলন দমাতে?
খুব লাভ হয়েছিল কি আপনার?

এর দুই বছর পরে মহানগর আওয়ামীলীগ সেক্রেটারি ডাবলু সরকার আপনার অফিসে এসে নিয়োগ বাণিজ্য ইস্যুতে যখন আপনাকে চড় থাপ্পড় মেরেছিল, কেমন লেগেছিল আপনার?

আপনার যাই লাগুক, শিক্ষকের গায়ে হাত তুলেছে, এটা ভেবে খারাপ লেগেছিল, কিন্তু সেই শিক্ষকটা সেই শিক্ষক যে নিজে ছাত্রলীগের গুণ্ডাপাণ্ডা পাঠিয়ে হামলা করিয়েছিলেন, তখন কিন্তু আপনার শিক্ষার্থীদের মন তেমন একটা খারাপ হয়নি। সেটার প্রতিবাদে হয়নি কোন মিছিল, হয়নি কোন প্রতিবাদ।

গতকাল ০৮ এপ্রিল, ছাত্রলীগ সেই একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটালো ঢাকায়। কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের উপরে সসস্ত্র হামলা চালায় ছাত্রলীগ।

কে ভালো কে মন্দ তার বিচার জনতাই করবে। সময় কথা বলবেই একদিন, সেটা আজ হউক বা কাল।

রাবির ঘটনার সুত্রঃ https://goo.gl/pmDn8t

পঠিত : ৪৪৬ বার

ads

মন্তব্য: ০